উপহারের গাড়ি’র বকেয়া টাকা মাফ চাইব: হিরো আলম

প্রকাশিত: ৪:০০ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২৩

উপহারের গাড়ি’র বকেয়া টাকা মাফ চাইব: হিরো আলম

ডেস্ক রিপোর্ট: বগুড়া-৪ ও বগুড়া-৬ আসনে উপনির্বাচনের আগে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিরো আলমকে গাড়ি উপহার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন শিক্ষক মুখলেছুর রহমান। ঘোষণা অনুযায়ী, গত ৭ ফেব্রুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে গাড়িটি তুলেও দেন তিনি। এর পরই জানা যায়, গাড়িটি ১০ বছর আগে মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে এবং এ জন্য বকেয়া রয়েছে ৪ লাখ ৩৯ হাজার ৪৪৩ টাকা।

 

জানা গেছে, শিক্ষক মুখলেছুরের উপহার হিসেবে দেওয়া ১৮০০ সিসির গাড়িটির রেজিস্ট্রেশন নম্বর ঢাকা মেট্রো-চ ৫১-৪১০১। যার সর্বশেষ ট্যাক্স দেওয়া হয়েছে ২০১৩ সালের ১৮ মার্চ। একই বছরের ১৫ জুলাই ফিটনেস মেয়াদোত্তীর্ণ হয় এই গাড়ির। এ কারণে ১০ বছরের সরকারি ফি বকেয়া রয়েছে। ১০ বছরের বকেয়া হিসাবে চার লাখ ৩৯ হাজার ৪৪৩ টাকা সরকারি ফি বকেয়া। অর্থাৎ গত ১০ বছর অবৈধভাবে গাড়িটি ব্যবহার করেছেন ওই শিক্ষক। এখন যার লাইসেন্স নবায়ন করতে এই টাকা পরিশোধ করতে হবে হিরো আলমকে।

 

এ বিষয়ে আলম জানিয়েছেন, আগে জানা ছিল না যে, গাড়িটি মেয়াদোত্তীর্ণ। এখন প্রায় পাঁচ লাখ টাকা বকেয়া আছে। যেহেতু অ্যাম্বুলেন্স করব, জনগণের সেবায় দেব। তাই এ নিয়ে কথা বলব বিআরটিএর সঙ্গে। কর্তৃপক্ষকে এই টাকা মাফ করে দিতে বলব। তারা যদি মাফ করে দেয় তা হলে ভালো, আর তা না করলে কমাতে বলব যেন এ সমস্যার সমাধান হয়ে যায়।

 

তিনি আরও বলেন, শুরুতে আমি যেতে চাইনি। অনেকে ফোন করে বললে আমি যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। বলে যে, গাড়িটি আপনাকে দেবে, নিয়ে আসেন। নির্বাচনের পর যাই। গিয়ে দেখি গাড়ির অবস্থা খুব বেশি ভালো না। গাড়ির কাগজ ১০ বছর আগে মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে, এটিও জানতাম না। উপহারের গাড়ি ভাঙা হোক, যাই হোক, সেটি বিষয় নয়।

 

অ্যাম্বুলেন্স বানানোর বিষয়ে হিরো আলম বলেন, অনেক সময়ই দেখি মানুষ মারা গেলে মরদেহ নেওয়ার জন্য রাস্তায় রাস্তায় টাকা তোলা হয়। আবার জরুরি অবস্থায় কেউ অসুস্থ হলে টাকার জন্য কেউ কেউ অ্যাম্বুলেন্স নিতে পারে না। এসব কারণে গাড়িটিকে অ্যাম্বুলেন্স করে জনগণের সেবায় দেওয়ার পরিকল্পনা করি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ